ফিট থাকতে এক বেলা ভাত খাচ্ছেন শাবনূর

ফিট থাকতে এক বেলা ভাত খাচ্ছেন শাবনূর
Spread the love

সোনালী বাংলাঃ  সিডনি থেকে শাবনূর ঢাকায় এসেছেন সপ্তাহখানেকের বেশি। বিনোদন অঙ্গনের বড় কোনো আড্ডাতে দেখা যায়নি তাঁকে। হঠাৎ এক ঘরোয়া আড্ডায় পাওয়া যায় তাঁকে। দুই দিন পর জানা গেল, আবার অভিনয়ে ফিরছেন ঢালিউডের একসময়ের জনপ্রিয়তম নায়িকা শাবনূর। ছবির নাম কাঁটাতারের বেড়া।

রোববার সকালে প্রথম আলোর সঙ্গে দীর্ঘ আলাপে ছবির নায়ক প্রসঙ্গে শুরুতে টুঁ শব্দটি করেননি শাবনূর। জানাননি এই প্রত্যাবর্তনে তাঁর বিপরীতে নায়ক হিসেবে কে থাকছেন! শুধু এতটুকুই বলেছেন, হতে পারে দেশের একজন জনপ্রিয় নায়ক, নয়তো ভারতের কেউ।

বেশ কিছুদিন আগে শাবনূরকে একটি ছবিতে কাজ করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ। শুরুতে প্রস্তাব গায়ে মাখেননি তিনি। পরে সাড়া দিয়েছেন। কাঁটাতারের বেড়া ছবিতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন শাবনূর, এমন একটি পোস্ট প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া তাদের ফেসবুকে প্রকাশ করেছে। প্রথম আলোকে শাবনূর বলেন, ‘এ দেশের দর্শক এখনো আমাকে ভালোবাসেন। তাঁরা নায়িকা চরিত্রেই শাবনূরকে চান। তাই ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

শাবনূর সর্বশেষ অভিনয় করেছিলেন ‘কিছু আশা কিছু ভালোবাসা’ ছবিতে। মোস্তাফিজুর রহমান পরিচালিত এই ছবিতে মৌসুমী ও ফেরদৌস ছিলেন। বিয়ে ও সন্তানের মা হওয়ার পর নায়িকা শাবনূরের ওজন বেড়ে যায়। তারপর নিজের যতটা সম্ভব পুরোনো গড়নে ফিরতে নতুন মিশনে নেমেছেন তিনি। খাওয়াদাওয়া ও ব্যায়ামে মনোযোগী হয়েছেন। তিনি বলেন, ‘নিজেকে পুরোপুরি ফিট করতে চাই, হিরোইন হিসেবে পর্দায় হাজির হতে হবে।’ আগে দিনে দুই বেলাই ভাত খেতেন তিনি। এখন খাচ্ছেন এক বেলা। সেই ভাতের পরিমাণও যত্সামান্য। প্রতিদিন ব্যায়ামাগারে যেতে না পারলেও ঘরে থাকা যন্ত্রে কাজ সারছেন। পরামর্শ নিচ্ছেন একজন অস্ট্রেলিয়ান পুষ্টিবিদ ও ব্যায়াম প্রশিক্ষকের কাছে।

কাঁটাতারের বেড়া ছবির শুটিং কবে? ‘আমার তৈরি হতে যত দিন লাগবে, ঠিক তত দিন। নতুন বছরের শুরুতেও হতে পারে। ছবির গল্প আমার এতটাই ভালো লেগেছে, প্রথমবার শুনেই রাজি হয়ে গেছি’, বললেন শাবনূর। এ–ও বললেন, ‘গল্পের মাঝপথে এসে আমার দম বন্ধ হওয়ার অবস্থা হয়েছিল।’
ছবিতে নায়ক হিসেবে শাবনূর চান শাকিব খান, রিয়াজ বা ফেরদৌসকে। তাঁর মতে, এ তিনজনই এখনকার সবচেয়ে স্মার্ট হিরো। তবে এ প্রজন্মের আরিফিন শুভ, সিয়াম, রোশানকে তাঁর ভালো লাগে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *